আবহাওয়া বাংলাদেশ 

ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ৯ জনের মৃত্যু, সারাদেশে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

জাগরণী ডেস্ক:সুপার সাইক্লোন আম্ফানের প্রভাবে দেশের বিভিন্ন জেলায় নয়জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে যশোরে দুজন, পটুয়াখালীতে দুজন, ভোলায় দুজন, পিরোজপুরে একজন, সন্দ্বীপে একজন ও সাতক্ষীরায় একজন রয়েছেন।দেশের বিভিন্ন জেলায় আম্পনের প্রভাবে ক্ষয়ক্ষতির চিত্রযশোরে গাছের নিচে চাপা পড়ে মা-মেয়ের মৃত্যু১৩৫ কিলোমিটার বেগে যশোরে তান্ডব চালায় ঘূর্ণিঝড় আম্ফান। বুধবার (২০ মে) সারাদিন থেমে থেমে ঝড়ো হাওয়া ও বৃষ্টিপাত হলেও রাতে প্রচন্ড বেগে ঝড় বয়ে যায়। রাত ৮টার পর থেকে বাড়তে থাকে ঝড়ের গতিবেগ।যশোরে সর্বোচ্চ ১৩৫ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হওয়ার খবর দিয়েছে স্থানীয় আবহাওয়া অফিস। গোটা জেলার বিভিন্ন এলাকায় গাছপালা, ঘরবাড়ি…

Read More
আবহাওয়া বাংলাদেশ 

যে ১৪ জেলার উপর তান্ডব চালাবে ঘূর্ণিঝড় আম্ফান

জাগরণী ডেস্ক:ঘন্টায় প্রায় ২৫০ কিলোমিটার বেগে দক্ষিণ বঙ্গোসাগরে সৃষ্টি হওয়ার পর সুপার সাইক্লোনের শক্তি নিয়ে উপকূলে দিকে এগিয়ে আসছে ‘আম্ফান’। উপকূল অতিক্রম করে সমতলে ওঠে আসার সময় দেশের ১৪ জেলায় তান্ডব চালাতে পারে প্রবল এই ঘূর্ণিঝড়। মঙ্গলবার আবহাওয়াবিদ মো. আবদুর রহমান খান স্বাক্ষরিত আম্পানের ২৩ নম্বর বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে এমনটিই জানানো হয়েছে।এতে বলা হয়েছে, পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত সুপার সাইক্লোন আম্পান উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে বর্তমানে একই এলাকায় অবস্থান করছে। এটি মঙ্গলবার সকাল ৬টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৮৯০ কিমি দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৮৪০ কিমি দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর…

Read More
আবহাওয়া বাংলাদেশ 

বঙ্গোপসাগরে ধেয়ে আসছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় উম্পুন

জাগরণী ডেস্ক:মে মাসের শুরুতে বঙ্গোপসাগরে হানা দিতে পারে ঘূর্ণিঝড় উম্পুন। এমনটিই জানিয়েছে ভারতীয় আবহাওয়া অফিস। তবে কোথায় আছড়ে পড়বে এই ঘূণিঝড়টি এবং এটির গতিপথ কোন দিকে হবে সেই সম্পর্কে এখনও বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি। ‘উম্পুন’ নামটি থাইল্যান্ডের দেয়া। ঘূর্ণিঝড়ের বর্তমান তালিকায় এটাই শেষ নাম।এপ্রিলের শেষের দিকে নিম্নচাপ সূষ্টি হতে পারে। সেই নিম্চাপ ঘূর্ণিঝড়ের রূপ নিলে নাম হবে উম্পুন। আন্দামান ও নিকোবারের দ্বীপগুলোতে এই ঝড়ের প্রভাব বেশি পড়বে বলে মনে করছে ভারতীয় প্রভাব আবহাওয়া দফতর।মে মাসে হওয়া ঘূর্ণিঝড়ের ভারতীয় মূল ভূখন্ডের দিকে এগিয়ে আসার প্রবণতা কম। ১৮৯১ সাল থেকে এখনও পর্যন্ত…

Read More
আবহাওয়া বাংলাদেশ 

সারাদেশে সোমবার বৃষ্টি বজ্রপাত হতে পারে

সারাদেশে আগামীকাল সোমবার থেকে বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়। এতে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, পরবর্তী ৭২ ঘণ্টায় বজ্রসহ আংশিক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া আজ আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। তবে, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের দু’এক জায়গায় হালকা গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অন্যদিকে সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধিসহ দেশের উত্তরাঞ্চলের দিনের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে। Please follow and like us:

Read More
আবহাওয়া প্রচ্ছদ 

পাঁচ জেলায় তীব্র শীতের দাপটে জনজীবন বিপর্যস্ত

শীতের তীব্রতায়  দেশের বিভিন্ন স্থানে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে শ্রমজীবী  খেটে খাওয়া মানুষ চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন। প্রচন্ড ঠান্ডায় তারা কাজে বের হতে পারছেন না। সোমবার পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৭.২ ডিগ্রি রেকর্ড করা হয়েছে। এছাড়া রাজশাহী, কুড়িগ্রাম, চাঁদপুর ও মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে শীতের তীব্রতা বৃদ্ধির খবর পাওয়া গেছে। এসব জায়গায় ঠান্ডাজনিত নানা রোগবালাই  দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে শিশুরা বেশি অসুস্থ হচ্ছে। আগামী কয়েকদিন এ সব জেলাগুলোতে শৈত্য প্রবাহের দাপট আরো বাড়তে পারে বলে আবহওায়া অফিস আভাস দিয়েছে। Please follow and like us:

Read More
আবহাওয়া বাংলাদেশ 

ডিমলায় হারকাঁপানো শীতে থরথরে কাঁপছে মানুষ

হিমালয়ের চারদিক দিয়ে অক্টোপাসের মতো ধেয়ে আসছে শীতের সাঁড়াশী আক্রমন। পারদ নিম্নমুখী হওয়ায় রীতিমত শৈত্যপ্রবাহ দিনদিন বেড়েই চলছে, আর থরথরে কাঁপছে উত্তরের মানুষজন। শীতের এই সমাগ্রীক দাপটে আকাশ মেঘাছন্ন হয়ে যাওয়ায় উত্তরী হাওয়ার অবাধ গতিতে মানুষের শরীরে  হাড় কাঁপানো কাঁপুনী ধরেছে। গত পাঁচ দিন ধরে সূর্য়ের দেখা মেলেনি  এ জেলায়। উত্তরবঙ্গে শীতের দাপট বরাবরই বেশী থাকে। তার ব্যাতিক্রম এবারো ঘটেনি, তবে এবারের গত কয়েক দিনের শীত গত কয়েক বৎসরের তুলনায় অনেক বেশি। বিশেষ করে হিমালয় পর্বত ঘেষা নীলফামারী জেলার ডিমলা উপজেলার মানুষজন হাড়কাঁপানো ঠান্ডায় থরথরে কাঁপছে। সংশিষ্ট সুত্র মতে, শীতবস্ত্র…

Read More
আবহাওয়া বাংলাদেশ 

শীতে কাঁপছে শেরপুরের গারোপাহাড়ী জনপদের মানুষ

পৌষ মাসের শুরু হতেই শীতে কাঁপছে দেশের উত্তরাঞ্চলের ভারত সীমান্তবর্তী শেরপুরের গারো পাহাড়ী জনপদের শেরপুরসহ নালিতাবাড়ীর মানুষ। শীতের সাথে পাল্লা দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে শৈত্য প্রবাহ। দরিদ্র সীমার নিচে বসবাসকারী এখানকার অধিকাংশ অধিবাসীরা প্রয়োজনীয় শীতবস্ত্রের অভাবে অতিকষ্টে রয়েছেন। বিশেষ করে পাহাড়ের অভ্যন্তরে ও পাদদেশে বসবাসকারী মুসলিম সমপ্রদায়সহ আদিবাসী তথা উপজাতি গরো-কোচ সমপ্রদায়ের মানুষের শীতের কারণে তাদের কষ্ট বাড়ছে। কনকনে ঠান্ডা হিমবায়ুর কারণে কাবু হচ্ছে মানুষ। এ থেকে বাদ পড়ছেনা গবাদি পশুও। একই সাথে প্রচন্ড শীতে শিশু, বৃদ্ধসহ নানা বয়সীর মানুষ ও অসুস্থ হয়ে পড়ছে। গত এক সপ্তহের অধিক দিন ধরে শেরপুর…

Read More
আবহাওয়া বাংলাদেশ 

ঠাণ্ডায় দুর্ভোগে ফরিদপুরের নিম্ন আয়ের মানুষ

ফরিদপুরে প্রচণ্ড শীত আর ঘন কুয়শায় জনজীবনে দুর্ভোগ নেমে এসেছে। কাজ না পেয়ে কষ্টে পড়েছেন নিম্ন আয়ের খেটে যাওয়া মানুষ। গতকাল বুধবার ফরিদপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়েস রেকর্ড করা হয়েছে বলে জেলা আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক সুরুজুল আমিন জানান। তিনি বলেন, গত কয়েকদিন ধারাবাহিক ভাবে ফরিদপুরের তাপমাত্রা নিম্নমুখী। এ অবস্থা আরও দুই-এক দিন চলতে পারে। গতকাল বুধবার সকালে জেলা শহরের ইমাম উদ্দিন স্কয়ার ও পুরানা বাস স্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা গেল- দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আসা দিন মজুরেরা কাজের অভাবে বসে আছে। দিনাজপুরের হাবিব মোল্লা বলেন, গত কয়েক দিনে…

Read More
আবহাওয়া প্রচ্ছদ 

সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায় ৬.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস

আবহাওয়া অধিদপ্তর যে পূর্বাভাস দিয়েছিল, তার আগেই দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে বইতে শুরু করেছে আরেকটি শৈত্যপ্রবাহ, পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় থার্মোমিটারের পারদ নেমেছে ৬.২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। আবহাওয়াবিদ এ কে এম নাজমুল হক বলেন, রংপুর ও রাজশাহী বিভাগ এবং টাঙ্গাইল ও কুষ্টিয়া জেলায় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বইতে শুরু করেছে। বৃহস্পতিবার থেকে দুদিন দেশের বিভিন্ন স্থানে, বিশেষ করে ঢাকা খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রামে হালকা বৃষ্টি হতে পারে। তাতে তাপমাত্রা আরেকটু কমতে পারে। শৈত্যপ্রবাহ মৃদু থেকে মাঝারি মাত্রা পেতে পারে। গতকাল বুধবার সকাল ৯টায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায়, ৬.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এটাই এ মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।…

Read More
করোনাভাইরাস সতর্কতায়

বারে বারে হাত ধুই, হাঁচি কাশিতে রুমাল/টিস্যু ব্যবহার করি, ময়ালা হাতে হাত মুখ স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকি। সরকারী নির্দেশনা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি, ঘরে থাকি।