বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০১:০৭ পূর্বাহ্ন

ডাকাতির সময় জেলেকে গুলি করে হত্যা বঙ্গোপসাগরে

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২১
  • ১০ Time View
ডাকাতির সময় জেলেকে গুলি করে হত্যা বঙ্গোপসাগরে
ডাকাতির সময় জেলেকে গুলি করে হত্যা বঙ্গোপসাগরে

মৎস্যজীবী ট্রলারে গণডাকাতির ঘটনা ঘটেছে বরগুনার পাথরঘাটা থেকে ১২০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে সুন্দরবনের মান্দারবাড়িয়া এলাকায়। ডাকাতির সময় গুলি করে হত্যা করা হয়েছে মো. মুসা মিয়া নামে এক জেলেকে।

এ ঘটনায় অনেক জেলে আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার দুপুরের পর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত সুন্দরবন এলাকায় ডাকাত দল এ তাণ্ডব চালিয়েছে বলে জানায় ট্রলার মালিক সমিতি।

ডাকাতের গুলিতে নিহত জেলে মুসার লাশ বুধবার সকাল ৭টায় পাথরঘাটা মৎস্য বন্দরে নিয়ে এলে বরগুনা-২ আসনের সংসদ সদস্য শওকত হাসানুর রহমান রিমন সেখানে উপস্থিত হয়ে সাংবাদিকদের জানান, বাংলাদেশ জলসীমায় কোনো জলদস্যু নেই। বিভিন্ন সূত্র থেকে নিশ্চিত হয়ে সংসদ সদস্য রিমন জানান, ভারতীয় ডাকাত দল দেশীয় কিছু ডাকাতদের নিয়ে সংঘবদ্ধ হয়ে বঙ্গোপসাগরে ডাকাতি করেছে।

নিহত জেলে মুসা পাথরঘাটা উপজেলার সদর ইউনিয়নের চরলাঠিমারা গ্রামের হারুন মিয়ার ছেলে। তিনি তার চাচা বাবুল ফকিরের ট্রলারে প্রথমবারের মতো বঙ্গোপসাগরে মাছ শিকারে গিয়েছিলেন।

জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সহসভাপতি আবুল হোসেন ফরাজী জানান, বাবুল ফকির, বাদল মোল্লা, আনোয়ার হোসেন, আবদুর রহমান ও মুসার মালিকানাধীন ট্রলারসহ অন্তত ১০টি ট্রলারে মঙ্গলবার দুপুর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ডাকাতি করে।

ট্রলার মালিক ও মাঝি বাবুল ফকির জানান, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে দ্রুত গতিসম্পন্ন বিশাল আকৃতির ভারতীয় ট্রলারে মুখোশ পরিহিত অবস্থায় ২৫-৩০ জন ডাকাত পিস্তল ও বন্দুকসহ আমাদের ট্রলারে ওঠে। তারা এলোপাতাড়ি মারধর করে এবং ট্রলারে যা কিছু ছিল তা তাদের ট্রলারে উঠিয়ে দিতে বললে সবকিছু উঠিয়ে দেই। ডাকাতদের মধ্য কয়েকজন হিন্দিতে কথা বলেছে। তারা অনেক ট্রলার ডাকাতি করেছে।

বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী জানান, পাথরঘাটা উপজেলার সদর পাথরঘাটা ইউনিয়নের চরলাঠিমারা গ্রামের মো. বাবুল ফকিরের মালিকানা এফবি বাবুল ট্রলারের ১২ জেলে সুন্দরবনসংলগ্ন বঙ্গোপসাগরের মান্দারবাড়িয়া এলাকায় জাল ফেলে অপেক্ষা করছিলেন।

রাত সাড়ে ৯টার দিকে সশস্ত্র ডাকাত দল হামলা চালিয়ে ওই ট্রলারে থাকা মাছ রসদসহ সবকিছু নিয়ে নেয়। পরে ১২ জেলেকে সারিবদ্ধভাবে দাঁড় করিয়ে গুলি ছুড়লে মুসা মিয়া নামে এক জেলের মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। পরে ডাকাতরা দ্রুত ট্রলার চালিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে।

পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাশার জানান, লাশ সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনায় পাঠানো হয়েছে।

কোস্টগার্ডের পশ্চিম জোনের অপারেশন অফিসার লেফটেন্যান্ট লুৎফুর রহমান বলেন, আমরা খবর শুনেছি। ঘটনাস্থলে আমাদের ফোর্স পাঠানো হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
Copyright © All rights reserved © 2022 Jagoroni Tv
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com