উপবৃত্তি-উপকরণ কেনার টাকা পাওয়া যাবে ঈদের আগেইজেলা সংবাদ বাংলাদেশ 

উপবৃত্তি-উপকরণ কেনার টাকা পাওয়া যাবে ঈদের আগেই

ডাক বিভাগের মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’ এর মাধ্যমে দেওয়া হবে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা।

কিছুদিন আগেও উপবৃত্তির টাকা শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের জন্য খুশির খবর ছিল না। উপবৃত্তির সামান্য কিছু টাকা, সেটিও বিভিন্নভাবে বেহাত হয়ে যেত কিংবা ক্যাশ আউট করতে না পেরে অনেকে আগ্রহ হারিয়ে ফেলতেন।

তবে সেই দৃশ্য অল্প সময়ের মধ্যে পরিবর্তন করেছে ডাক বিভাগের মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’।
ফলে দেশের প্রত্যন্ত এলাকার শিক্ষার্থীরাও এখন উপবৃত্তি টাকা পাচ্ছেন সহজে। আগে টাকা পেলেও টাকা তোলার জন্য ভোগান্তি পোহাতে হতো। এবার ‘নগদ’-এর মাধ্যমে টাকা পেয়ে তার কোনো ধরনের সমস্যা হয়নি, বাড়ির পাশের দোকান থেকে তিনি ক্যাশ আউট করেছেন।

উপবৃত্তির সঙ্গে সঙ্গে সারা দেশের কোটি পরিবারের কাছে ছোট্ট ছোট্ট খুশি আর আনন্দ যেন পৌঁছে গেছে। এরই মধ্যে ১ কোটির বেশি মায়ের মোবাইলে সরকারের প্রাথমিক ও গণশিক্ষার উপবৃত্তির টাকা স্বচ্ছভাবে পৌঁছে দিয়েছে ‘নগদ’। বাড়ির পাশে ‘নগদ’ উদ্যোক্তা থাকায় সহজে, প্রয়োজন অনুসারে ক্যাশ-আউটও করে নিতে পারছেন উপকারভোগীরা।

এই দফায় ‘নগদ’ বিতরণ করেছে আগে থেকেই জমে থাকা ২০২০ সালের এপ্রিল-জুন প্রান্তিকের উপবৃত্তি। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, ঈদের আগেই আরো দুটি প্রান্তিকের উপবৃত্তিসহ ২০২১ সালের শিক্ষা উপকরণ কেনার ভাতাও পেয়ে যাবেন শিক্ষার্থীর অভিভাবকেরা। ফলে শিক্ষার্থীদের ঈদের আনন্দ কিছুটা হলেও বৃদ্ধি পাবে।

এর আগে গত বছর কোভিড-এর শুরুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘নগদ’সহ আরো তিনটি এমএফএস অপারেটরের মাধ্যমে ৫০ লাখ পরিবারকে আড়াই হাজার টাকা করে ঈদের উপহার পাঠিয়েছিলেন। যেখানে সবচেয়ে বেশি পরিমাণ পরিবারের কাছে সফলভাবে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পৌঁছে দিয়েছিল ডাক বিভাগের সেবা ‘নগদ’।

প্রায় এক বছর উপবৃত্তি বিতরণ বন্ধ থাকার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় গত বছরের ডিসেম্বরে ‘নগদ’-এর সঙ্গে চুক্তি করে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই)। ‘নগদ’-এর মাধ্যমে উপবৃত্তি বিতরণের ফলে এক দিকে যেমন স্বচ্ছতা নিশ্চিত হয়েছে, ভূতুড়ে সুবিধাভোগী বাদ পড়েছে এবং অন্যদিকে উপবৃত্তি ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণে সরকারের খরচ এক-তৃতীয়াংশে নেমে এসেছে।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment