প্রচ্ছদ বাংলাদেশ 

কবে খুলছে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ?

জাগরণী ডেস্ক:
করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে দেশের সব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সময়সীমা বাড়িয়ে আগামী ৬ আগস্ট পর্যন্ত করা হয়েছে। তবে ঈদের পর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলবে কবে তা নিয়ে দোটানায় রয়েছেন অভিভাবকেরা। করোনার কারণে প্রায় ৫ মাস ধরে বন্ধ রয়েছে সব প্রকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। সবশেষ সিদ্ধান্তে বলা হয়, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছুটির সময়ে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের সংসদ টেলিভিশনের মাধ্যমে প্রচারিত ‘আমার ঘরে আমার স্কুল’ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শ্রেণি পাঠ গ্রহণ করতে হবে। অবশ্য সরকার থেকে ইঙ্গিত দেওয়া হয়, করোনাভাইরাসের বর্তমান পরিস্থিতি অব্যাহত থাকলে এই ছুটি আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত গড়াতে পারে।
তবে ঈদের পরে স্কুলে ছুটির বিষয়ে জানতে চাইলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষাসচিব আকরাম-আল-হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ছুটি অবশ্যই বাড়বে। যে অবস্থা, তাতে সেপ্টেম্বরের আগে খুলতেই পারব না। আগে বাচ্চাদের নিরাপত্তা। তারপরে অন্য কিছু। সেপ্টেম্বরকে লক্ষ্য করে আমরা এগোচ্ছি। সেপ্টেম্বরের আগে স্কুল খুলব না।’
এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মাহবুব হোসেন ওই শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তারা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করছেন। ছুটির বিষয়ে সম্ভবত ঈদের আগেই জানানো হবে।
মহামারি করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কারণে গত ১৮ মার্চ থেকে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এরই মধ্যে ভাইরাসের বিস্তার রোধে দেশের সকল ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সময় তিন দফা বাড়িয়ে আগামী ৬ আগস্ট পর্যন্ত ছুটি বাড়ানো হয়।
এর আগে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বাংলাদেশ জাতীয় শিক্ষা বোর্ড নামক ফেসবুক পেজ থেকে স্ট্যাটাসের মাধ্যমে জানানো হয় ‘ঈদের পর সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে সরকার।’
তবে এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে সংবাদটি ভিত্তিহীন ও গুজব। এ ধরনের মিথ্যা ও ভিত্তিহীন সংবাদের মাধ্যমে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য শিক্ষার্থীদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে আরও জানানো হয় যখনই এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে তখন সাথে সাথেই গণমাধ্যমের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের জানানো হবে। এছাড়া ঈদের পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এখনও পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। তাছাড়া বাংলাদেশ জাতীয় শিক্ষা বোর্ড নামে কোন বোর্ড নেই।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment

করোনাভাইরাস সতর্কতায়

বারে বারে হাত ধুই, হাঁচি কাশিতে রুমাল/টিস্যু ব্যবহার করি, ময়ালা হাতে হাত মুখ স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকি। সরকারী নির্দেশনা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি, ঘরে থাকি।