জেলা সংবাদ 

বিশ্বম্ভরপুরের ধনপুর ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে কার্ডধারীদের ভিজিডি’র চাল ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে বিপর্যস্ত কর্মহীন মানুষদের মাঝে সরকারের দেয়া ভিজিডি ও ভিজিএফ কর্মসূচীর আওতায় খাদ্য সহায়তার অংশ হিসেবে কার্ডধারীদের চাল ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ উঠেছে  সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ৩নং ধনপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হযরত আলী কালাচাঁনের বিরুদ্ধে। ইউনিয়নের ছাতারকোণা গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে সামছুল আলম, গামাইরতলা গ্রামের আলাল মিয়ার স্ত্রী হালিমা বেগম, ইসলামপুর গ্রামের আফছর উদ্দিনের স্ত্রী সহরবানু জানানসহ বেশ কয়েকজন ভুক্তভোগী জানান, ২০১৯ ও ২০ সালের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত ভিজিডি কার্ডের মাধ্যমে জনপ্রতি ৩০কেজি করে চাল দেয়ার কথা থাকলেও চেয়ারম্যান হযরত আলী কালাচান গত ২১মে ওই ইউনিয়নের ৫৭৩ টি পরিবারের কার্ডধারী প্রত্যেককে ২০ কেজি থেকে ২৫ কেজি করে চাল দেন। 

এ ব্যাপারে ধনপুর ইউনিয়নের ১,২,৩ নং ওয়ার্ডের মহিলা ইউপি সদস্যা মোছাঃ চানবানু বলেন, চেয়ারম্যান কাঁলাচান মিয়া কার্ডধারীদের ওজনে চাল কম দিয়ে তিনি নিজেই বাকি চাল আত্মসাৎ করেছেন। ওজনে চাল কম দেয়ার বিষয়টি প্রতিবাদ করলে চেয়ারম্যান ও তার লাঠিয়াল বাহিনী ওই ইউপি সদস্যকে শারীরিক নির্যাতনে উদ্যত হয়। পরে উপস্থিত লোকজন চেয়ারম্যানকে প্রশমিত করেন। খবর পেয়ে স্থানীয় সংবাদকর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের একাধিক সদস্যদের সাথে কথা বলে অভিযোগের সত্যতা পান বলে প্রতিবেদককে জানান।

এ বিষয়ে প্রতিবেদক, অভিযুক্ত চেয়ারম্যান হযরত আলী কালা চাঁন এর কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে চেয়ারম্যান প্রতিবেদকের সাথেও অশালীণ আচরণ করে অভিযোগ অস্বিকার করে।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment

করোনাভাইরাস সতর্কতায়

বারে বারে হাত ধুই, হাঁচি কাশিতে রুমাল/টিস্যু ব্যবহার করি, ময়ালা হাতে হাত মুখ স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকি। সরকারী নির্দেশনা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি, ঘরে থাকি।